৩ দুলাভাই মিলে শ্যালিকাকে ধর্ষণ, সন্তান প্রসবের পর মামলা!

ভারতীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানা গেছে, ওই কিশোরী ও তার মা চারদিনের সন্তানকে নিয়ে থানায় হাজির হয়েছিলেন। অপ্রত্যাশিত দৃশ্য দেখে কর্মরত পুলিশ রীতিমতো স্তম্ভিত হয়ে যায়। এরপর সোমবার  নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

৩ দুলাভাই মিলে শ্যালিকাকে ধর্ষণ, সন্তান প্রসবের পর মামলা!

অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী তার তিন দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে। এমনকি ধর্ষণের ফলে গর্ভবতী হয়ে সন্তানেরও জন্ম দিয়েছে সে।

রোববার (৫ জুলাই) চারদিনের শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয় ওই কিশোরী। ঘটনা শুনে পুলিশ অবাক। এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জ থানা এলাকায়।

ভারতীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানা গেছে, ওই কিশোরী ও তার মা চারদিনের সন্তানকে নিয়ে থানায় হাজির হয়েছিলেন। অপ্রত্যাশিত দৃশ্য দেখে কর্মরত পুলিশ রীতিমতো স্তম্ভিত হয়ে যায়। এরপর সোমবার  নির্যাতিত ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

স্থানীয় রাধিকাপুরের ওই কিশোরী অভিযোগ করে, গেল বছরের অক্টোবরে দুর্গাপূজার দশমির সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। চাঁদপুকুর মাঠের মেলায় নিয়ে যাওয়ার নামে নদী সংলগ্ন বাঁধে তাকে ধর্ষণ করে বুড়িডাঙার লিটন বর্মন ও চপরইয়ের বাসিন্দা দীপক রায়। সন্ধ্যায় ঘটনাটির পর পান্ডারার সুমিত বর্মণও তার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালান। 

অভিযোগকারী ওই কিশোরী জানায়, ধর্ষণকারী ওই তিনজন তার সম্পর্কে দুলাভাই হন। ধর্ষণের পর দুলাভাইয়েরা তাকে হুমকি দেয়- ঘটনার কথা কাউকে জানালে মেরে ফেলা হবে।

কিশোরীর মা জানান, ২ জুলাই দুপুরে বাড়িতে তার মেয়ে সন্তান জন্ম দেয়। এরপর মেয়ের কাছে ঘটনাটি জানতে পারেন তার মা। মেলা দেখানোর কথা বলে মেয়ের যারা সর্বনাশ করেছে তাদের বিচার চেয়েছেন তিনি। 

এদিকে কিশোরীর জবানবন্দির জন্য সোমবার তাকে রায়গঞ্জ জেলা আদালতে পাঠায় পুলিশ।

সূত্র সময়নিউজ