লন্ডনে মার্কিন দূতবাস ঘিরে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ

যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসে পুলিশি নির্যাতনে জর্জ ফ্লয়েড নিহতের ঘটনায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে রোববার দ্বিতীয় দিনের মতো লন্ডনের মার্কিন দূতাবাস ঘিরে হাজার হাজার জনতা বিক্ষোভ করেছেন। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের ওপর নিন্দা জানিয়ে বর্ণবাদ একটি ভাইরাস- এমন স্লোগান দিতে থাকেন। বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ মুখে মাস্ক পরিধান করেন।

লন্ডনে মার্কিন দূতবাস ঘিরে দ্বিতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিসে পুলিশি নির্যাতনে জর্জ ফ্লয়েড নিহতের ঘটনায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে রোববার দ্বিতীয় দিনের মতো লন্ডনের মার্কিন দূতাবাস ঘিরে হাজার হাজার জনতা বিক্ষোভ করেছেন। বিক্ষোভকারীরা পুলিশের ওপর নিন্দা জানিয়ে বর্ণবাদ একটি ভাইরাস- এমন স্লোগান দিতে থাকেন। বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ মুখে মাস্ক পরিধান করেন। 

লন্ডন পুলিশের প্রধান ক্রেসিডা ডিক জানিয়েছে, বর্ণবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে শনিবার ১৪ জন পুশিস সদস্য আহত হয়েছেন। এর আগে গত সপ্তাহে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে ১৩ জন আহত হন। এ নিয়ে পুলিশের ২৭ জন সদস্য আহত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

কর্তৃপক্ষ বলছে, বিক্ষোভকারীদের কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকির সতর্ক করার পরও তার দ্বিতীয় দিনের মতো লন্ডনে বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন। তারা টেমস নদীর দক্ষিণ তীরে অবস্থিত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের বিপরীত সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন।

এরপর প্রতিবাদকারীরা জাস্টিস নাউ স্লোগান দিতে দিতে দেশটির পার্লামেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের দিকে অগ্রসর হন। এ সময় অনেকেই তাদের হাতে থাকা প্লাকার্ড সংসদের বাইরে রেলিংয়ে ঝুলিয়ে দেন।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবারে বিক্ষোভের ঘটনায় ২৯ জনকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া রোববারের ঘটনায় ১২ জনকে আটক করা হয়।

রয়টার্স