ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা একেবারে তলানিতে ,প্রথম’ সমাবেশেই বড় ধাক্কা খেলেন ট্রাম্প

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ট্রাম্প প্রশাসনের ব্যর্থতার অভিযোগ রয়েছে। দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকটও মারাত্মক। এর ওপর বর্ণবাদী আচরণের বিরুদ্ধে গোটা যুক্তরাষ্ট্র বিক্ষোভে ফুঁসছে। এমন অবস্থায় ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা একেবারে তলানিতে ,প্রথম’ সমাবেশেই বড় ধাক্কা খেলেন ট্রাম্প
ছবি: সংগৃহীত প্রথম’ সমাবেশেই বড় ধাক্কা খেলেন ট্রাম্প

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই নির্বাচনী সমাবেশ পুনরায় শুরু করলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। লকডাউন–পরবর্তী প্রথম নির্বাচনী ওই জনসভা গত শনিবার ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যের টালসা শহরে অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে ধারণার চেয়ে জমায়েত ছিল খুব কম। সমাবেশের বক্তৃতায় বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ও ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ট্রাম্প প্রশাসনের ব্যর্থতার অভিযোগ রয়েছে। দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকটও মারাত্মক। এর ওপর বর্ণবাদী আচরণের বিরুদ্ধে গোটা যুক্তরাষ্ট্র বিক্ষোভে ফুঁসছে। এমন অবস্থায় ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। জনমত জরিপগুলোতে প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের থেকে অনেক পিছিয়ে আছেন ট্রাম্প। তাই তিন মাসের বেশি সময় পর প্রথম নির্বাচনী সমাবেশের স্থান হিসেবে টালসা শহরকে বেছে নেন ট্রাম্প।

বর্ণবাদী সংঘাতের জন্য আলোচিত শহরটির জনসভায় অংশ নিতে প্রায় ১০ লাখ মানুষ আগ্রহ দেখিয়েছেন বলে গত সপ্তাহে জানিয়েছিলেন ট্রাম্প নিজেই। কিন্তু শনিবারের ওই সমাবেশে ছিল হাতে গোনা দর্শক। যে সেন্টারে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়, সেই ব্যাংক অব ওকলাহোমা সেন্টারের ১৯ হাজার আসনের অনেকগুলো ফাঁকা ছিল। ট্রাম্প ভেবেছিলেন অনুষ্ঠানস্থলের বাইরেও বিশাল জমায়েত থাকবে। সেখানেও কিছু বলার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। কিন্তু লোক না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ওই পরিকল্পনা বাদ দেন ট্রাম্প।

লকডাউন–পরবর্তী ওকলাহোমার টালসা শহরে প্রথম নির্বাচনী সমাবেশে ধারণার চেয়ে লোক ছিল খুবই কম।
'প্রথম' সমাবেশেই বড় ধাক্কা খেলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের সংখ্যা ২২ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজারের মতো। এরপরও সমাবেশে ট্রাম্প করোনা মহামারির বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ার দাবি করেন। তিনি বলেন, ‘আমি এটার বিরুদ্ধে অসাধারণ কাজ করেছি।’

মহামারির মধ্যে বড় ধরনের সমাবেশ নিয়ে এমনিতেই ওই টালসা অঞ্চলে ব্যাপক উদ্বেগ দেখা দেয়। সমাবেশ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে টালসা শহরে জনসভা আয়োজনের দায়িত্বে থাকা দলের ছয় সদস্যের করোনো পজিটিভ ধরা পড়ে।

জনসভায় প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে নানা বিষয়ে কথা বলেন দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামা ট্রাম্প। সমাবেশে আসা সমর্থকদের ‘যোদ্ধা’ বলে অভিহিত করেন তিনি। সমাবেশে লোক কম হওয়ার জন্য গণমাধ্যম ও বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ঘাড়ে দায় চাপান।

সমাবেশে ট্রাম্প নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাঁর সম্ভাব্য ডেমোক্রেট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এ ভাইস প্রেসিডেন্ট ‘কট্টর বামদের হাতে অসহায় এক পুতুল’। জরিপে বাইডেনের চেয়ে পিছিয়ে থাকলেও ট্রাম্প দাবি করেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ নীরব ভোটাররা তাঁর পক্ষে আছেন। আগামী নির্বাচনে তাঁরা তাঁকেই ভোট দেবেন।

সূএ প্রথমআলো