নতুনধারার প্রতিভাবান নির্মাতা শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী।

মিডিয়া জগতে যার বিচরণ অমানীশার অন্ধকার রাতে চন্দ্রীমার রুপোলী আলো ছড়ানো জ্যোৎস্নার মতো ভূবন আলোকময় করে, সে আর কেউ নয় শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী

নতুনধারার প্রতিভাবান নির্মাতা শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী।
ছবি : banglarkagoj.com

মিডিয়া জগতে যার বিচরণ অমানীশার অন্ধকার রাতে চন্দ্রীমার রুপোলী আলো ছড়ানো জ্যোৎস্নার মতো ভূবন আলোকময় করে, সে আর কেউ নয় শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী
বার আউলিয়ার পূণ্যভূমি খ্যাত শত শত মনীষি, মনি ঋষীর জন্মমৃত্যুতে ধন্য প্রকৃতির অপরুপ সৌন্দর্য্যে রুপঐশর্য্যের শোভাময়ী স্থান, প্রাচ্যের সুন্দরী খ্যাত নয়নাভিরাম দর্শনের লীলাভূমি চট্টগ্রাম জেলার সম্ভ্রান্ত পরিবারে প্রয়াত এডভোকেট শেখ আলিম উল্লাহ চৌধুরীর মত একজন স্বনামধন্য বিখ্যাত আইনজীবির ঘরে শওকত ইকবালের জন্ম। মায়ের নাম বেগম বদরুন নাহার চৌধুরাণী। আট ভাইবোনের মাঝে ষষ্ঠজন এই বহুমূখী প্রতিভার গৌরবোজ্জ্ব মিডিয়া ব্যক্তিত্ব শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী।
শৈশবে প্রকৃতির আলিঙ্গনে কাঁচামাটির সুঁধা গন্ধে চঞ্চল মন ডানপিটে চরিত্রে বেড়ে ওঠা কিশোর শওকত ইকবাল, আজকের শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উচ্চবিদ্যালয়ে যথেষ্ট ভাল মেধাবী ছাত্র হিসেবে পড়াশোনা শেষ করে এস,এস,সি, এইচ,এস,সি এবং স্নাতক সম্পন্ন করে
বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করলেও শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী ছিলেন একটু খেয়ালীপনা স্বভাবের, পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন চুড়ান্তের সব প্রস্তুতি ঠিকঠাক থাকলেও খেয়ালীপনার কারণে যেমনি উচ্চশিক্ষার সম্পন্ন করেননি, ঠিক তেমনি আইন বিষয়ের বিশেষ স্টাডি করা সত্বেও চুড়ান্ত পরীক্ষা দেওয়া হয়নি আইন কলেজের আইন বিষয়ের
সমাপনীতেও।
তিনি একাধারে একজন মিডিয় ব্যক্তিত্ব,নাট্যকার, পরিচালক,অভিনেতা, নির্মাতা, রচয়িতা, এডিটর, ক্যামেরা পরিচালক, গল্পকার, প্রবন্ধ ও নিবন্ধকার। বর্তমানে
বাংলাদেশ টেলিভিশন,চট্টগ্রাম কেন্দ্রের অতিথি প্রযোজক হিসেবে তিনি কর্মরত আছেন।
তার অনেক নাটক, মিউজিক ভিডিও, তথ্য চিত্রসহ সৃস্টিশীলজ নির্মাণ সুধীমহলে প্রশংসীত হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন,চট্টগ্রাম কেন্দ্রে যোগ দিয়ে এ যাবৎ তিনি অনেক জনপ্রিয় ও সৃজনশীল প্রযোজনা করে আসছেন।
মিডিয়ায় অতি পরিচিত ও জনপ্রিয় নির্মাতা হিসাবে আধুনিক মান সম্পন্ন অসাধারণ ভাল ভাল অনুষ্ঠানের নির্মাণ করছেন তিনি, যার মধ্যে আলোচিত জাতীয় ও আঞ্চলিক গানের অনুষ্টান, মাইজ ভান্ডারী আধ্যাত্মিক গানের অনুষ্ঠান, মঞ্চনাটক,যাত্রাপালা, ইতিহাস ঐতিহ্যে নিয়ে তথ্য ও প্রামান্য চিত্র, মিউজিক ভিডিও, বরেণ্য ব্যাক্তিদের নিয়ে তথ্যচিত্র,শর্ট ফিল্ম, টেলি ফিল্ম, খন্ড নাটক, ধারাবাহিক নাটক ইত্যাদি
অনুষ্ঠানাদি,তার নাটক অরণ্যের দিন রাত্রি,আট পর্ব বিটিভিতে, দুই-এ,দুই-এ দুই চার পর্ব চ্যানেল আই,সাদা স্বপ্ন
এটিএন বাংলায়,মাথিন-ই- আসাই, বৈশাখী টিভিতে, ভূল বাগানের ফুল, শুকরান, বিটিভি চটগ্রাম কেন্দ্রে, সূখ,
অনেক দিন পর, এবং বিবর্ণ স্বপ্ন, অন্যান্য মাধ্যমে প্রচারিত হয়।
শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী একজন প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক যোদ্ধা, নৈতিক অবক্ষয় ও যুব সমাজের অধঃপতন রোধে একজন সংগ্রামী নাট্যব্যক্তিত্ব, তিনি অসংখ্য
মিউজিক ভিডিও (আঞ্চলিক,আধ্যাত্মিক, ও আধুনিক ) নির্মাণ করেছেন, তথ্যচিত্র ১৫/২০টি, মঞ্চনাটক ৩০ট নির্দেশনা দিয়েছেন,টিভি নাটক,পথ নাটক,মঞ্চ নাটক মিলিয়ে প্রায় অসংখ্য নাটক রচনা করেছেন, তিনি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সংগঠনের বা সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করে
দক্ষতার সাথে নেতৃত্ব দেন।
তিনি চট্টগ্রাম গ্রুপ থিয়েটার সমন্বয় পরিষদ এবং চট্টগ্রাম গ্রুপ থিয়েটার ঐক্য পরিষদ এর সভাপতি। আহবায়ক, থিয়েটার ক্লাব চট্টগ্রাম, প্রধান উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা অনু নাটক পরিষদ ও পথ নাটক পরিষদ চট্টগ্রাম।
সাবেক সাধারণ সম্পাদক নববর্ষ উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম, আহবায়ক ও সদস্য সচিব মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা
পরিষদ চট্টগ্রাম, স্বাধীনতা মেলা পরিষদ চট্টগ্রাম।
অন্যতম সংগঠক ও উদ্দোগক্তা সন্মিলিত পহেলা বৈশাখ উদযাপন পরিষদ, রবীন্দ্র নজরুল জন্মজয়ন্তী পরিষদ, বই মেলা পরিষদ চট্টগ্রামসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত।
চট্টল থিয়েটার এর প্রতিষ্ঠাতা ও দল্প্রধান শেষ শওকত ইকবাল বাংলাদেশ টেলিভিশন, বেতার,ও মঞ্চ অভিনেতা। তিনি স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক
পত্রিকায় প্রবন্ধ ও নিবন্ধ লিখেন। নাটক ও মিডিয়ায় অবদান রাখার জন্য তিনি বিভিন্ন সময় স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে পেয়েছেন সম্নাননা হয়েছেন সংবর্ধিত।
সময়ের সাথে নিজেকে সবসময় জড়িয়ে দেশের তথা জাতির কল্যাণে আত্মনিবেদিত এই উদ্যোমী মিডিয়া বোদ্ধা,সাংস্কৃতিকযোদ­্ধা, শেখ শওকত ইকবাল চৌধুরী জায়গা করে নিক সাধারণ মানুষদের হৃদয়াসনে, তারুণ্যের প্রতীক এমন স্বপ্নবাজ সৃজনশীল নির্মাতা তার সৃষ্টিশীল জগত আর দশজনের মাঝে ছড়িয়ে দিক এটাই আমরা চাই।