ইউক্রেনে দাবানল : ৬ জনের মৃত্যু

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে দাবানল নেভাতে কয়েক’শ অগ্নি নির্বাপক ও উদ্ধার কর্মী পাঠানো হয়েছে । দাবানলে ইতোমধ্যেই ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আর্সেন আভাকভ এ কথা বলেন।আর্সেন আভাকভ বলেন, লুগানক্স অঞ্চলের এই দাবানল নেভাতে আকাশ থেকে পানি ছিটানোর জন্য বিমান পাঠানো হয়েছে। এই অঞ্চল আংশিকভাবে রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

ইউক্রেনে দাবানল : ৬ জনের মৃত্যু
ছবি:সংগৃহীত

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে দাবানল নেভাতে কয়েক’শ অগ্নি নির্বাপক ও উদ্ধার কর্মী পাঠানো হয়েছে । দাবানলে ইতোমধ্যেই ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আর্সেন আভাকভ এ কথা বলেন।আর্সেন আভাকভ বলেন, লুগানক্স অঞ্চলের এই দাবানল নেভাতে আকাশ থেকে পানি ছিটানোর জন্য বিমান পাঠানো হয়েছে। এই অঞ্চল আংশিকভাবে রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

ফায়ারফাইটাররা জানান, প্রাথমিকভাবে তারা আগুনের শিখা দমাতে পেরেছিলেন, তবে তীব্র বাতাস ও তাপমাত্রা বৃদ্ধিও কারণে দাবানল পুনরায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে ইতোমধ্যে ৮০ হেক্টর (২০০ একর) বনভূমি পুড়ে গেছে।

ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী ও রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের লড়াইয়ের ফ্রন্টলাইনে ২ শ’রও বেশী ঘরবাড়ি ভষ্মীভূত হয়।

আঞ্চলিক গভর্নর সারহিব হাইদাই রেডিও এনভি কে বলেন, সোমবার এই দাবানল শুরু হয়, উদ্ধারকারীরা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা থেকে লোকদের সরিয়ে আনার চেষ্টা করে তবে কিছু প্রবীণ অধিবাসী এই আহবান প্রত্যাখান করেছেন।

তারা বলেছেন, “আমরা এখানে জন্মেছি, এখানেই মৃত্যুবরণ করবো।” গত বছর ইউক্রেনের উত্তরাঞ্চলে নিষিদ্ধ চেরনোবিল এলাকায় দাবানলে ৬৬ হাজার হেক্টরের বেশী বনভূমি পুড়ে গেছে। চেরনোবিলে ১৯৮৬ সালে বিশ্বের ভয়াবহ পারমাণবিক দুর্ঘটনা ঘটেছিল। 

বাসস